‘মায়াবতী’ সিনেমার মিলনমেলা

আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাচ্ছে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘মায়াবতী’। গতকাল সোমবার রাতে রাজধানীর বাংলামোটর এলাকার একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজন করা হয়েছিল আসন্ন সিনেমা ‘মায়াবতী’ এর মহরত। এ সিনেমায় মূল চরিত্রে অভিনয় করবেন রোশান ও তিশা।  অনুষ্ঠানে তিশা দর্শকদের প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে ছবি দেখার আহ্বান জানান।
পৃথিবীর প্রত্যেক মানুষের ‘না’ বলার অধিকার নিয়ে অরুণ চৌধুরী ‘মায়াবতী’ সিনেমাটি নির্মাণ করেছেন।
এ সম্পর্কে অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করেছি বিষয়টি সুন্দরভাবে সিনেমায় উপস্থাপন করতে’। তিশা বলেন, ‘অনেক প্রতিবন্ধকতার মধ্যেও নির্মাতারা সিনেমা বানান শুধু দর্শকদের জন্য। দর্শক যখন প্রেক্ষাগৃহে সপরিবারে সিনেমা দেখতে আসেন, তখনই আসলে এত পরিশ্রম সার্থক হয়। আর ভবিষ্যতে নির্মাতাদের আরও সিনেমা বানাতে সাহস জোগায়। দর্শকদের বলতে চাই, তাঁরা যেন সিনেমা দেখেন, তাঁদের মন্তব্য জানান এবং সাপোর্ট করেন।’মাঝে আর মাত্র দুই দিন।  ছোট পর্দায় সুপরিচিত নির্মাতা অরুণ চৌধুরীর পরিচালনায় এ ছবিতে জুটি হয়েছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা ও ইয়াশ রোহান। সিনেমার মুক্তি উপলক্ষে ‘মায়াবতী আড্ডা’ নামে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন পরিচালক অরুণ চৌধুরী, অভিনেত্রী আফরোজা বানু, নুসরাত ইমরোজ তিশা, অভিনেতা নরেশ ভুঁইয়া, ইয়াশ রোহান, সংগীতশিল্পী আগুন, প্রযোজক আনোয়ার আজাদসহ অনেকে। ‘মায়াবতী আড্ডা’ আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন শিল্পী, কলাকুশলী, ও সাংবাদিকরা।
২০১৮ সালে ‘স্বপ্নজাল’ সিনেমা দিয়ে বড় পর্দায় আসেন ইয়াশ রোহান। অনুষ্ঠানে ইয়াশ রোহান বলেন, ‘মায়াবতী’ আমার দ্বিতীয় সিনেমা। এর গল্পটা খুব চমৎকার। সিনেমাটির যে কয়টি জায়গায় সুযোগ ছিল, আমি ভালো করার চেষ্টা করেছি। এখন আমার ক্যারিয়ারে এমন একটি সিনেমা খুব দরকার ছিল। অনেক কিছু শিখেছি। সবাইকে পরিবার নিয়ে সিনেমাটি দেখার আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।’
দ্বিতীয়  চলচ্চিত্র সাফল্যের বিষয়ে দারুণ আশাবাদী পরিচালক অরুণ চৌধুরী। দর্শক ‘মায়াবতী’ দেখে নিরাশ হবেন না বলেও অনুষ্ঠানে জানান তিনি। অরুণ চৌধুরী বলেন, ‘আমরা প্রাথমিকভাবে ২০টি হলে মুক্তির পরিকল্পনা করেছি। যদিও জাজ মাল্টিমিডিয়া ৪০টিতে মুক্তি দিতে চাচ্ছে। কিন্তু এখনই এতগুলো হল চাচ্ছি না। প্রথম সপ্তাহে দর্শকদের প্রতিক্রিয়া দেখে আমরা কতগুলো হল বাড়াব, সেই সিদ্ধান্ত নেব। আর এখন ঢাকার যেই হলগুলোতে দর্শক বেশি হয়, সেগুলোতে মুক্তি দিচ্ছি।’ অরুণ চৌধুরী বলেন, ‘আমার মতে প্রতিটি সিনেমা মূলধারার। ফর্মুলার বাইরের সিনেমাগুলোর দর্শক দিন দিন বাড়ছে। আমাদের নির্মাতা মনে করেন ফর্মুলা সিনেমা নির্মাণ করলেই দর্শকেরা দেখবেন। আমি সবার প্রতি সম্মান রেখেই বলছি, “মনপুরা”, “আয়নাবাজি”, “দেবী” এগুলো কোনো ফর্মুলা সিনেমা নয়।

কিন্তু দর্শক দেখেছেন। দর্শকেরা কিন্তু সিনেমা দেখতে চান। আমরা নির্মাতারা তাঁদের টানতে পারছি না।’অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন রুম্মান রশীদ খান। আনোয়ার আজাদ ফিল্মস ও অনন্য সৃষ্টি অডিও ভিশন প্রযোজিত ‘মায়াবতী’তে তিশা, রোহান ছাড়াও অভিনয় করেছেন ফজলুর রহমান বাবু, রাইসুল ইসলাম আসাদ, দিলারা জামান, মামুনুর রশীদ, নরেশ ভুঁইয়া, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, আফরোজা বানু, অরুণা বিশ্বাস, আবদুল্লাহ রানা, তানভীর হোসেন প্রবাল, আগুন, মীমসহ অনেকে।

২ ঘণ্টা ২০ মিনিট ব্যাপ্তির এ ছবির গল্প গড়ে উঠেছে নারী পাচারকে ঘিরে। সমাজের পারিপার্শ্বিক অবস্থা চিত্রায়িত হয়েছে এ চলচ্চিত্রে। প্রেমের গল্পের পাশাপাশি পরিচালক অরুণ চৌধুরী এতে সমাজের নানা অসংগতি তুলে ধরেছেন।
বিনোদন প্রতিবেদক:
Designed by SB Shuvo